ArabicBengaliEnglishHindi

২৪ বছর পর পাকিস্তানের সঙ্গে ড্র করলো অস্ট্রেলিয়া


প্রকাশের সময় : মার্চ ৮, ২০২২, ৭:২৩ অপরাহ্ন / ৮২
২৪ বছর পর পাকিস্তানের সঙ্গে ড্র করলো অস্ট্রেলিয়া

স্পোর্টস ডেস্ক ->>
২৪টি বছর পার করে তবেই পাকিস্তানের মাটিতে খেলতে এলো অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। কিন্তু সফরের শুরুটা তাদের সুখকর হলো না। রাওয়ালপিন্ডি টেস্পে পাকিস্তানের সঙ্গে নিষ্প্রাণ ড্র’ই করতে হলো অসিদের।

উল্টো পাকিস্তানি ব্যাটারদের লম্বা সময় ধরে ব্যাটিংয়ে ফিল্ডিং করেই অধিকাংশ সময় কাটাতে হয়েছে অস্ট্রেলিয়াকে। প্রথম ইনিংসে পাকিস্তানের করা ৪৭৬ রানের জবাবে অস্ট্রেলিয়া করেছিল ৪৫৯ রান। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে দুই ওপেনার আউটই হলেন না পাকিস্তানের। বিনা উইকেটে তারা করলো ২৫২ রান।
টেস্টের ফল হওয়ার সম্ভাবনা যে একেবারেই নেই, দু’দলই জেনে গেছে। সুতরাং, সুযোগটা কাজে লাগালেন পাকিস্তানের দুই ওপেনার। অস্ট্রেলিয়ান বোলিংয়ের সামনে পরের টেস্টের জন্য দু’জনই নিজেদের ভালোভাবে ঝালিয়ে নিলেন।

পাকিস্তানের দুই ওপেনিং ব্যাটার আবদুল্লাহ শফিক এবং ইমাম-উল হক মিলে করলেন জোড়া সেঞ্চুরি। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামার সময় সম্ভবত অস্ট্রেলিয়ান বোলারদের উইনেট না দেয়ার পণ করে নেমেছিলেন তারা। যে কারণে উদ্বোধনী জুটিতেই ২৫২ রান তুলে খেলা শেষ করে তারা। ১৩৬ রানে আবদুল্লাহ শফিক এবং ১১১ রানে ব্যাট অপরাজিত থাকেন ইমাম-উল হক।

 

 

 

এরমধ্যে ইমাম-উল হক আবার উভয় ইনিংসে সেঞ্চুরি করলেন। আগের ১১ টেস্টে যিনি একটি সেঞ্চুরিও করতে পারলেন না, ১২তম টেস্টে এসে দুই ইনিংসেই সেঞ্চুরি করে ফেললেন। ঘরের মাঠের আলো-বাতাস পেয়ে তরতরিয়ে একই টেস্টে জোড়া সেঞ্চুরি করলেন তিনি। একেই বলে স্বাগতিক হওয়ার ভাগ্য!

প্যাট কামিন্স, মিচেল স্টার্ক, জস হ্যাজলউড, নাথান লিওন, মার্নাস ল্যাবুশেন, ট্রাভিস হেড, স্টিভেন স্মিথ কিংভা ক্যামেরন গ্রিন- মোট ৯জন বোলার। পুরো দলের কাকে ব্যবহার করতে ভুলেছেন অধিনায়ক কামিন্স! ডেভিড ওয়ার্নার আর উইকেটরক্ষক অ্যালেক্স ক্যারে- দুই নিরেট ব্যাটারছাড়া বাকি সবাই বল করলেন। কিন্তু পাকিস্তানি দুই ওপেনারের জোড় ভাঙতে পারলেন কই!
প্রথম ইনিংসে ৪ উইকেটে ৪৭৬ রান করেছিল পাকিস্তান। ইমাম-উল হক খেলেছিলেন ১৫৭ রানের ইনিংস। আজহার আলি খেলেছিলেন ১৮৫ রানের ইনিংস। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ভালোই জবাব দিচ্ছিল অস্ট্রেলিয়া। চতুর্থ দিন শেষেও তাদের রান ছিল ৭ উইকেটে ৪৪৯। ২৭ রান পিছিয়ে ছিলো কেবল তারা।

কিন্তু পঞ্চম দিন সাত সকালে ব্যাট করতে নেমে পাকিস্তানি পেসার এবং স্পিনারদের সামনে বাকি তিন উইকেট পড়তে লেগেছে কেবল ১০ রান। নৌমান আলি ২টি এবং শাহিন আফ্রিদি নিলেন এক উইকেট। ৪৫৯ রানে অলআউট অস্ট্রেলিয়া।

১৭ রানের লিড নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামে পাকিস্তান। কোনো উইকেট না হারিয়ে ২৫২ রানে শেষ করে তারা।