ArabicBengaliEnglishHindi

২২ বছরের পলাতক আসামি র‍্যাবের হাতে গ্রেপ্তার


প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারী ২৫, ২০২২, ১:২২ অপরাহ্ন / ৯৫
২২ বছরের পলাতক আসামি র‍্যাবের হাতে গ্রেপ্তার
জামালপুর জেলা প্রতিনিধি ->>
দীর্ঘ ২২ বছর পর জামালপুরের মেলান্দহে একটি হত্যা মামলার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রাপ্ত আসামি আব্দুল জলিল কে বৃহস্পতিবার ২৪ ফেব্রুয়ারি গভীর রাতে জেলার মাদারগঞ্জ উপজেলার হাটমাগুরা এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১৪, সিপিসি- ১ এর একটি আভিযানিক দল।
মেলান্দহ উপজেলার কাঙ্গালকুর্শা গ্রামের মৃত সিরাজ আলীর ছেলে আসামি আব্দুল জলিল।
র‌্যাব-১৪, সিপিসি-১ জামালপুর ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার স্কোয়াড্রন লিডার আশিক উজ্জামান এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, ২০০০ সালের ১৯ মে মেলান্দহ উপজেলার কাঙ্গালকুর্শা গ্রামের কৃষক ইয়াকুব আলীর বাঁশ ঝাড়ের কয়েকটি বাঁশ পাশের কৃষক জয়নাল আবেদীনের ধান ক্ষেতে পড়ে যায়। এ নিয়ে কথা কাটাকাটির জের ধরে নৃশংস হামলায় নিহত হন জয়নাল আবেদীন। এ ঘটনায় আব্দুল জলিলসহ কয়েক জনের নামে মেলান্দহ থানায় হত্যা মামলা দায়ের হয়। ঘটনার পর থেকে পলাতক থাকা অবস্থায় আদালতের রায়ে আসামি আব্দুল জলিল যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত হন। এরপর থেকে দীর্ঘ ২২ বছর ধরে তিনি পলাতক ছিলেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ২৪ ফেব্রুয়ারি রাত ২ টার দিকে র‌্যাব-১৪, সিপিসি-১, জামালপুর ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার স্কোয়াড্রন লিডার আশিক উজ্জামানের নেতৃত্বে এবং সহকারী পুলিশ সুপার এম.এম. সুবজ রানার উপস্থিতিতে র‌্যাবের একটি আভিযানিক দল মাদারগঞ্জ উপজেলার হাটমাগুরা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়।
তিনি আরও জানান, গ্রেপ্তারের পর আসামি আব্দুল জলিল দীর্ঘ ২২ বছর ধরে তার পলাতক জীবনের বর্ণনা দেন। তিনি হত্যার ঘটনার পর থেকে পলাতক অবস্থায় ঢাকা, রংপুর, খুলনা ও কুড়িগ্রাম জেলায় থাকতেন। পলাতক অবস্থায় তিনি কখনো কোম্পানির দারোয়ান, কখনো ঠিকাদার, ফেরিওয়ালা, কবিরাজ সহ বিভিন্ন বেশ ধারণ করে ঘুরে বেড়াতেন। গ্রেপ্তারের পর তাকে মেলান্দহ থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।