ArabicBengaliEnglishHindi

সন্দ্বীপে গাছুয়া এ,কে,একাডেমি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে আর্থিক অনিয়মসহ পকেট কমিটির নির্বাচনের অভিযোগ


প্রকাশের সময় : জানুয়ারী ২১, ২০২২, ৯:৫৯ অপরাহ্ন / ২৬২
সন্দ্বীপে গাছুয়া এ,কে,একাডেমি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে আর্থিক অনিয়মসহ পকেট কমিটির নির্বাচনের অভিযোগ

 

সন্দ্বীপের গাছুয়া এ,কে,একাডেমি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ম্যানেজিং কমিটির সদস্যের যোগসুযোগে আর্থিক অনিয়মের গুঞ্জন ও পকেট কমিটির নির্বাচনের অভিযোগ এলাকায় ছড়িয়ে পড়েছে। অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষকের নাম আমিনুর রসুল।

সরেজমিনে অভিযোগের তদন্ত করে জানা যায়,অভিযুক্ত শিক্ষক ম্যানেজিং কমিটির এক আহবায়ক সদস্যের যোগসুযোগে আর্থিক অনিয়মের কর্মকান্ডগুলো করে আসছে।জানা যায়,স্কুলের পুরাতন ভবন বিক্রিতে মোটা অংকের কমিশনে স্থানীয় এক ব্যবসায়ীকে বিক্রি দেয় যা এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি করে।

২০২০সালের ফেব্রুয়ারিতে সন্দ্বীপ উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক বরাদ্দকৃত ৫০০০০টাকা, একই বছর জেলা পরিষদের বরাদ্দ ২লক্ষ টাকা, সর্বশেষ এস.এস.সি পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে ২২০০টাকা করে গ্রহণ (বোর্ড কর্তৃক মানবিক ১৮৭০,বিজ্ঞান ১৯২০টাকা) ও ৮ম শ্রেণির রেজিষ্ট্রেশন ফি বাবদ ৩০০টাকা গ্রহন(বোর্ড কর্তৃক ১৮০টাকা) করে যা স্কুলের দায়িত্বরত হিসাবরক্ষক পরান বাবু মুঠোফোনে এ প্রতিবেদকের কাছে স্বীকার করে বলেন,”অতিরিক্ত টাকা স্যার নিজে অফিস থেকে নিয়ে যান এবং অনুদানে প্রাপ্ত টাকা আমার কাছে নেই।” এছাড়াও ২০২১ সালে উপজেলা পরিষদের বরাদ্দে স্কুলের মাঠ উন্নয়নেও রয়েছে ব্যাপক অনিয়ম।

জানা যায় মাঠ উন্নয়নে ১,৮০০০০(এক লক্ষ আশি হাজার টাকা) বরাদ্দকৃত টাকায় মাত্র কয়েক ট্রাক মাটি ও দরজা-জানালা সংস্কার করে ধামাচাপা দেন অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক। সম্প্রতি ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনে নিজের পছন্দের প্রার্থীসহ পাতানো নির্বাচন করতে গেলে অভিভাবকদের একটি প্রতিনিধি লিখিতভাবে অভিযোগ করেন। এবিষয়ে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষকের কাছে জানতে চাইলে তিনি সংবাদ পরিবেশন না করে সংশোধনের সুযোগ চান।

শিক্ষকের এমন কর্মকান্ডে হতাশা প্রকাশ করছে শিক্ষিত ও সচেতন মহল। স্কুলের সাবেক শিক্ষক কয়েকজন শিক্ষক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অভিযুক্ত শিক্ষকের অভিযোগ তদন্ত সাক্ষেপে ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। সন্দ্বীপ উপজেলা শিক্ষা অফিসার(মাধ্যমিক) বলেন, বিষয়টি জেনেছি।খতিয়ে দেখব।”