ArabicBengaliEnglishHindi

মেলান্দহে তরুনীর লাশ উদ্ধারের ১২ ঘন্টার মধ্যেই ঘাতক স্বামী আটক


প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারী ৫, ২০২২, ১১:৩৪ পূর্বাহ্ন / ১০
মেলান্দহে তরুনীর লাশ উদ্ধারের ১২ ঘন্টার মধ্যেই ঘাতক স্বামী আটক
এমরান হোসেন, জামালপুর জেলা প্রতিনিধি ->>
জামালপুরের মেলান্দহ থেকে মৌসুমী আক্তার নামে এক যুবতীর মৃতদেহ উদ্ধারের ১২ ঘণ্টার মধ্যেই হত্যার রহস্য উদঘাটন ও হত্যাকারীকে গ্রেপ্তার করেছে জামালপুর পুলিশ ইনভেষ্টিগেশন ব্যুরো (পিবিআই)। বৃহস্পতিবার (৩ জানুয়ারি) রাতে নিহত যুবতীর প্রাক্তন স্বামী মোঃ জাহিদ হোসেনকে জামালপুর জেলার ইসলামপুর উপজেলার নাপিতের চর ইউনিয়নের সাহাপাড়া গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।
শুক্রবার (৪ জানুয়ারি) দুপুরে জামালপুর পিবিআই কার্যালয়ে পিবিআই এর পুলিশ সুপার এম.এম. সালাউদ্দীন সংবাদ সম্মেলনে জানান, গত বৃহস্পতিবার সকালে মেলান্দহ উপজেলার কুলিয়া ইউনিয়নের দাউদপুর গ্রামের পরিত্যক্ত ইঁট ভাটা থেকে অজ্ঞাত পরিচয়ের এক যুবতীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে নিহতের আঙ্গুলের ছাপের মাধ্যমে ওই যুবতীর নাম ঠিকানা নিশ্চিত করে পিবিআই সদস্যরা।এরপর থেকে পুলিশের পাশাপাশি ছায়া তদন্ত শুরু করে পিবিআই । পরে তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে নিহতের স্বামী মোঃ জাহিদ হোসেনের ( প্রাক্তন) অবস্থান নিশ্চিত করে সেখানে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করেন পিবিআইর পুলিশ পরিদর্শক মোঃ জয়নাল আবেদীন।
সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও জানান, গাজীপুর জেলার টঙ্গী চেরাগআলী দত্তপাড়া এলাকায় সাত মাস পূর্বে মোঃ জাহিদ হোসেনের সাথে মৌসুমী আক্তারের বিয়ে হয়। বিয়ের পর তারা ৫ মাস সংসার করেন। গত এক মাস পূর্বে বিভিন্ন কারনে স্ত্রী মৌসুমী আক্তার স্বামী মোঃ জাহিদ হোসেনকে তালাক দিয়ে চলে যায়। এরপর থেকে জাহিদ মোবাইল ফোনে মৌসুমী আক্তারের সাথে ফের যোগাযোগ শুরু করেন এবং তাকে পুনরায় বিয়ে করার আশ্বাস দেন। এক পর্যায়ে মৌসুমী আক্তার তার কথায় রাজি হলে জাহিদ হোসেন গত ২ ফেব্রুয়ারি ঢাকার আশুলিয়ার জিরানী বাজার থেকে মৌসুমী আক্তারকে জামালপুরে নিয়ে আসেন।মৌসুমী আক্তার আশুলিয়ায় একটি পোশাক কারখানায় কাজ করতেন। রাতে জামালপুরে পৌঁছার পর অটোরিকশা যোগে মেলান্দহ উপজেলার দাউদপুর এলাকার ডেফলা ব্রিজ সংলগ্ন একটি নির্জন এলাকায় মৌসুমী আক্তারকে নিয়ে যায় জাহিদ। পরে সেখানে লোহার রড ও ইট দিয়ে তাকে নির্মমভাবে হত্যা করে পালিয়ে যায় সে।
নিহত মৌসুমী আক্তার লালমরিনহাট জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার চন্দ্রপুর ইউনিয়নের উত্তর বত্রিশ হাজারী গ্রামের মোঃ জাকির হোসেনের মেয়ে। এ ঘটনায় নিহতের মা ববিতা খাতুন বাদী হয়ে মেলান্দহ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।
উল্লেখ্য, গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার দাউদপুর এলাকার জামালপুর-ইসলামপুর সড়কের পাশের একটি পরিত্যক্ত ইটভাটার মাঠ থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।