ArabicBengaliEnglishHindi

আশুলিয়ায় ডিস ব্যাবসা দখল কে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, আহত ২৫


প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারী ২৬, ২০২২, ৮:১৪ অপরাহ্ন / ৫৭
আশুলিয়ায় ডিস ব্যাবসা দখল কে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, আহত ২৫
এনামুল হক শামীম ->>
আশুলিয়ায় ডিশ ব্যবসা দখল নিয়ে যুবলীগ নেতা ও ইউপি সদস্যের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনায় উভয় পক্ষের অন্তত ২৫ জন আহত হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
শনিবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ১২টার দিকে আশুলিয়ার শিমুলিয়া ইউনিয়নের রণস্থল বাজারে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় আহত হয় ইউপি সদস্যের লোকজন। পরে যুবলীগ নেতার বাড়িতে হামলা চালায় আহতের লোকজন। আহতরা হলেন শিমুলিয়া ইউনিয়নের রণস্থল গ্রামের শামীম (৩১), শাকিল (২২), সফিক (১৭),  আব্দুল হাই (৬৫), নুর হাসেন (৫২), লাবলু (৪৬),  হাবিবুর (৪৫), শামিম (৩৫), ওহাদ আলী (৭০), আলমগীর (২৫) ও তোফাজ্জল মল্লিক (৪৭)।
এ ছাড়া যুবলীগ নেতার পক্ষের আহতরা হলেন আমির হোসেন জয় (৩৫), হাজি আতাউর রহমান (৬০), জহেলা বেগম (৫৫), শামসুল আলম (৪৮), সমন খান (৪০), আনসের আহম্মেদ (৫২), নুরুল ইসলাম (৫৩), কাইয়ুম হোসেন (২৮), নুর মোহাম্মদ (৩৮) ও তমছের (৬৫)।
এলাকাবাসী জানায়, বেশ কয়েক দিন ধরে ডিশ ব্যবসা নিয়ে দুই গ্রুপের মাঝে উত্তেজনা বিরাজ করছিল। শনিবার সকালে দুই গ্রুপ সমাধানের জন্য বসলেও কোনো ফলাফল ছাড়াই বৈঠক শেষ হয়। পরে দুপুরের দিকে রণস্থল বাজারে যুবলীগ নেতার লোকজন জাহাঙ্গীর মেম্বার ও আব্দুল হাইয়ের লোকজনের ওপর হামলা চালায়। এ সময় প্রায় পাঁচ থেকে ছয়জন আহত হয়। পরে জাহাঙ্গীর মেম্বারের লোকজন একত্র হয়ে যুবলীগ নেতা জয়ের বাসায় হামলা চালায়। এ সময় তার মা-বাবা ও বোন জামাই আহত হন।
এ ব্যাপারে শিমুলিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি জয় বলেন, ‘আমাদের পরিবারের সকল সদস্যসহ মোট ১১ জন আহত হয়েছে। আমাদের বাড়িতে অতর্কিত হামলা চালানো হয়েছে। আমি নিজেও আহত। ‘
ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীরের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।
পুলিশ জানায়, রণস্থলের আব্দুল হাই ও ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীরের লোকজনের সাথে যুবলীগ নেতা জয়ের মধ্যে ডিশ ব্যবসাকে কেন্দ্র করে সংর্ঘষের ঘটনার ঘটেছে। জয়ের পক্ষের ১০ থেকে ১২ জন আহত হয়েছে। তবে হাইয়ের পক্ষের লোকজনের খবর এখনো পাওয়া যায়নি।
আশুলিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জিয়াউল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেছে পুলিশ। পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক রয়েছে। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে।