ArabicBengaliEnglishHindi

অপহরণের পর চারদিন আটকে রেখে কিশোরীকে ধর্ষণ


প্রকাশের সময় : মার্চ ২৬, ২০২২, ২:৪৬ অপরাহ্ন / ২৪
অপহরণের পর চারদিন আটকে রেখে কিশোরীকে ধর্ষণ

এনামুল হক শামীম ->>

ধামরাইয়ে অপহরণের পর চারদিন আটকে রেখে এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ভুক্তভোগী কিশোরী স্থানীয় একটি স্কুলের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী। এ ঘটনায় অভিযুক্ত বখাটে শিপন আহমেদকে (২১) বিবাদী করে ধামরাই থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে ভুক্তভোগী কিশোরীর পরিবার।

শুক্রবার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ধামরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিকুল ইসলাম। এদিকে ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছে অভিযুক্ত শিপন।

পুলিশ ও ভুক্তভোগীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরী বাড়ির পাশের একটি স্কুলে অষ্টম শ্রেণিতে পড়াশোনা করেন। গত ২১ মার্চ রাতে সূতিপাড়া ইউনিয়নের মাকরখোলা গ্রামের দেলোয়ারের ছেলে স্থানীয় বখাটে শিপন আহমেদ ওই কিশোরীকে অপহরণ করে সানোড়া ইউনিয়নের কালামপুর এলাকায় এক বাড়িতে আটকে রাখে। সেখানে চার দিন আটকে রেখে জোরপূর্বক ইয়াবা টেবলেট সেবন করিয়ে তাকে ধর্ষণ করে।

পরে সেখান থেকে স্থানীয়দের সহায়তায় কৌশলে বাড়িতে ফিরে এসে ভুক্তভোগী কিশোরী তার মাকে ধর্ষণের বিষয়টি জানায়। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর পরিবার শিপনকে প্রধান আসামী করে ধামরাই থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে।

এবিষয়ে ধামরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিকুল ইসলাম বলেন, অভিযুক্ত শিপনকে আটকের চেষ্টা করছে পুলিশ। আটকের পর তার বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।